প্রথমবার বিমান যাত্রা? যাত্রী হিসেবে যা করবেন, যা করবেন না

বিমান যাত্রার সময় অনেকেই ভেবে বসেন, বিমানের ক্রুরা যাত্রীদের আদেশ মানতে বাধ্য। বিষয়টা কিন্তু মোটেও তেমন নয়। আবার, বিমান যাত্রার পুরোটা সময় অনেকেই বিরক্তিকর হয়ে ওঠেন ক্রু এবং যাত্রীদের জন্য। অনেক সময় হয়তোবা নিজের অজান্তেই কেউ বিরক্তিকর কিছু করে ফেলেন। কিছুটা সতর্ক হলে অবশ্য এমনটা হওয়ার কথা নয়। বিমান যাত্রী হিসেবে যে বিষয়গুলো অবশ্যই মনে রাখা উচিত সেদিকে একটু নজর দেয়া যাক।

প্রথমবার বিমান যাত্রা? যাত্রী হিসেবে যা করবেন, যা করবেন না

 

প্লেনের ভেতরে ঢোকার সময় এয়ারহোস্টেসের অভিনন্দনের জবাব হাসিমুখে দেবেন।

কোন উপহার পেলে, এটি আপনার প্রাপ্য ছিলো, এমনটা না ভেবে ধন্যবাদ জানান।

যাত্রী হিসেবে অন্যের বিরক্তির কারনে পরিণত হবেনা। সিট নম্বর অনুযায়ী ভেতরে গিয়ে বসুন। ধাক্কা ধাক্কি করবেন না।

সিট খুঁজে না পেলে, এয়ারহোস্টেসের সাহায্য নিন। চিৎকার-চেঁচামেচি করবেন না।

ক্রুদের ঘোষনার পর অবশ্যই মোবাইল ফোন বন্ধ করুন। প্লেনের ভেতরে ছবি তোলা বেশ কিছু এয়ারলাইন্সে নিষিদ্ধ। আপনি যেই এয়ারলাইন্সে ভ্রমণ করছেন সেখানে এমন কোনো নিষেধাজ্ঞা আছে কিনা জানতে চেষ্টা করুন।

ফোন বন্ধ করার ঘোষণার আগ পর্যন্ত ফোনে কথা বলতে হলে, আস্তে কথা বলুন।

কেবিনের ভেতরে হ্যান্ড লাগেজ নিয়ে ঢোকার পরই, সেটিকে সিটের ওপরে নির্দিষ্ট স্থানে রাখুন।

যে কোনো প্রয়োজনে নির্দিষ্ট বোতাম চেপে ক্রুদের ডাকুন। জোরে ডাক দেয়ার প্রয়োজন নেই।

খাবার শেষে উচ্ছিষ্ট বা ব্যবহৃত চামচ-ছুরি ইত্যাদি একসাথে ট্রে বা প্যাকেটের ভেতর গুছিয়ে রাখুন। ফেরত দেয়ার সময় গুছিয়ে ফেরত দিন। এয়ারহোস্টেসের গায়ের ওপর ফেলে দেবেন না।

সতর্ক থাকুন ল্যাভেটরি বা টয়লেট ব্যবহারেও। ফ্ল্যাশ করে তবেই বের হবেন।

সর্বোপরি মনে রাখবেন, বিমানের টিকেট দামী বলেই আপনার আচরণও হওয়া উচিত ভীষণ দামী। অর্থাৎ, এমন একটি বাহনে আপনার যাত্রা করার সামর্থ্য আছে মানেই এমনটা নয় যে, আপনি যেমন খুশি তেমন আচরন করবেন। বরং, আপনার সংযত ব্যবহার যাত্রী হিসেবে দীর্ঘদিন যাতে ক্রুদের মনে থাকে তেমনই চেষ্টা করুন।

 

 

ইশরাত জাহান স্টেলা

ই-মেইল: contact@atpoure.com

Leave a Reply