ত্বক আর চুল সুন্দর অলিভ অয়েলে, অব্যর্থ পাঁচ টিপস

অলিভ অয়েল দিয়ে ত্বক আর চুল পরিচর্যার টিপস

খসখসে ত্বক, রুক্ষ চুল, ফাঁটা গোড়ালি এসবই যেন বলে দেয়, শীত বুড়ি এখনও পালিয়ে যায়নি। এসময় বাতাসে আর্দ্রতা কম থাকে বলে ত্বক ও চুল স্বাভাবিক ভারসাম্য ঠিকই হারাতে থাকে। তবে এই ভারসাম্য ঠিক রাখাটা কিন্তু খু্ব কঠিন কিছু নয়। শুধু চাই একটু বাড়তি পরিচর্যা। আর সেই পরিচর্যাটা যদি করা যায় জলপাই তেল বা অলিভ অয়েল দিয়েই তাহলে তো সোনায় সোহাগা। জেনে নিন অলিভ অয়েল দিয়ে ত্বক আর চুল পরিচর্যার কিছু টিপস।

 

  • অলিভ অয়েলে আছে ভিটামিন ‘ই’ ও ভিটামিন ‘এ’, যা সব ধরণের ত্বক, এমনকি সেনসেটিভ ত্বকের জনেও খুব উপকারী। বলিরেখা দূর করতেও এটি দারুণ কার্যকর। প্রতিবার মুখ ধোয়ার পর সামান্য অলিভ অয়েল মুখে ও গলায় লাগিয়ে নিলে ত্বক কোমল ও মসৃণ হবে।

 

  • চুল মজবুত ও ঝলমলে করতে এবং চুলের আগা ফেটে যাওয়া রোধে এই তেলের জুড়ি নেই। অলিভ অয়েল হালকা গরম করে স্ক্যাল্পে ও চুলে লাগিয়ে আঙ্গুল দিয়ে কিছুক্ষণ স্ক্যাল্প ম্যাসাজ করতে হবে। ৩০ মিনিট পর শ্যাম্পু করে নিলে কন্ডিশনারের প্রয়োজন পড়বে না।

 

  • চোখের ডার্ক সার্কেল দূর করতে অলিভ অয়েল দারুণ কার্যকর। প্রতিদিন ঘুমাতে যাবার আগে অনামিকাতে অল্প তেল নিয়ে চোখের চারপাশে ক্লক ওয়াইজ হালকা ম্যাসাজ করতে হবে। ১৫ মিনিট পর তেল মুছে ফেলতে হবে।

 

  • ঠোঁট ফাটা রোধে অলিভ অয়েল খুব সহায়ক। তেলের সাথে একটু লেবুর রস ও চিনি মিশিয়ে ঠোঁটে ঘষতে হবে যতক্ষণ না চিনি গলে যায়। এতে ঠোঁট নরম ও মসৃণ হবে।

 

  • নিয়মিত অলিভ অয়েল শরীরে লাগালে ত্বক উজ্জ্বল হয়। গোসলের পর সারা শরীরে এই তেল লাগালে ত্বকের খসখসে ভাব দূর হয়ে যাবে।

 

 

নুসরাত শাহপার তুবা

ই-মেইল: contact@atpoure.com

2 COMMENTS

  1. I am using Olive oil for a long time for my cooking. I know how it can help a person to be healthy and fit by only consuming it! Well piece of writing…hope to get more in future.

Leave a Reply