ঘুমানোর আগে যে ৮ অভ্যাস এনে দেবে সুন্দর ও সুস্থ ত্বক

সুন্দর ও সুস্থ ত্বক কে না চায়?

ছেলে কিংবা মেয়ে সুন্দর ও সুস্থ ত্বক কে না চায়? আর এজন্য নিয়মিত পার্লার, রূপচর্চা বা ডায়েট এসবের একেবারেই প্রয়োজন পড়বে না যদি আপনি একটু সচেতন হন। একটু ঘরোয়া যত্নেই আপনার ত্বক হয়ে উঠতে পারে সুন্দর ও স্বাস্থোজ্জ্বল। বিশেষ করে রাতে ঘুমাতে যাবার আগে ত্বকের কিছু বাড়তি যত্ন নিলে এই উজ্জ্বলতা বেড়ে যায় বহুগুণ। মেনে চলার চেষ্টা করুন এই ৮ টিপস।

 

মেকআপ তুলে ঘুমাতে যান

হালকা বা ভারী যে ধরনের প্রসাধনীই আপনি ব্যবহার করুন না কেন রাতে অবশ্যই সঠিক পদ্ধতিতে মেকআপ তুলে ঘুমাতে যান।হাজার আলসেমি লাগলেও কখনই মেকআপসহ ঘুমানো ঠিক নয়। কারণ প্রসাসনীতে থাকে নানা রকম রাসায়সিক উপাদান যা ত্বকের জন্য বেশ ক্ষতিকর। এতে ত্বক অনুজ্জ্বল হওয়ার পাশাপাশি ব্রণের উপদ্রব হয়। তাই ত্বক সুস্থ রাখতে অবশ্যই মেকআপ তুলে ফেলুন।

একটু উঁচু বালিশ ব্যবহার করুন

সাধারণত ঘুমানোর জন্য নরম ও পাতলা বালিশ ব্যহারের পরামর্শ দিয়ে থাকেন ডাক্তাররা কেননা এতে ঘুম ভাল হয় পাশাপাশি স্পন্ডেলাইটিসিসের সমস্যা হওয়ারও সম্ভাবনা থাকে না। তবে ত্বক ভাল রাখতে একটু উঁচু বালিশ ব্যবহার করতে পারেন। উঁচু বালিশে ঘুমালে ঘুম থেকে উঠার পর চোখের নিচে ও মুখের ফোলা ভাব থাকে না।

মাস্ক লাগিয়ে ঘুমাতে যান

ঘুমানোর আগে অবশ্যই কোনো ভালো ব্র্যান্ডের মাস্ক লাগান। মুখের দাগ কমানো কিংবা ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়াতে হারবাল মাস্ক ব্যবহার করতে পারেন। আ্যালোভেরা বা ঘৃতকুমারীর রসও এক্ষেত্রে বেশ কার্যকর। অনেকে আবার ত্বকের ধরণ বুঝে নাইট ক্রিম ব্যবহার করেন। এটিও ভালো কাজ দেয়।

হ্যান্ড ক্রিম ব্যবহার করুন

হাত থেকেই রোগ জীবানুরা ছড়ায় বেশি। ফলশ্রুতিতে আপনি হয়ে পড়েন অসুস্থ। তাই সুস্থ থাকতে আমরা বারবার সাবান কিংবা লিকুইড সোপ দিয়ে হাত পরিস্কার করি। এতে হাতের ত্বক বেশ রুক্ষ হয়ে যায়। শুধু হাত ধোয়া নয় ধুলো ময়লার কারণেও হাতের ত্বক রুক্ষ হতে পারে। এতে হাতের ত্বকের পাশাপাশি নখও অসুস্থ ও নোংরা হয়ে যায়। তাই হাতের ত্বক ঠিক রাখতে ঘুমানোর আগে হ্যান্ড ক্রিম ব্যবহার করুন। এর ফলে সকালে ঘুম থেকে উঠার পর হাত ও নখগুলো থাকবে সুন্দর।

সিল্কের বালিশ কভার ব্যবহার করুন

সুতি বা অন্য ফেব্রিকের তৈরি বালিশের কভার বেশ খসখসে হয়। এতে ঘুমের যেমন ব্যঘাত ঘটে তৈমনি চুল ও ত্বকেরও বেশ ক্ষতি হয়। তাই রাতে ঘুমানোর জন্য সিল্কের কাপড়ের তৈরি বালিশের কভার ব্যবহার করতে পারেন। এতে চুলের পাশাপাশি মুখের ত্বকও থাকবে বেশ ভালো।

চুল বেঁধে ঘুমান

রাতে ঘুমানোর সময় অনেকেই চুল খুলে ঘুমান। এটিকে এক ধরনের বদঅভ্যাসও বলা যায়। কারণ চুলের তেল, ময়লা থেকে ত্বকে নানা ধরনের জীবানুর সংক্রমণ হতে পারে। আর চুলের আগাও ভেঙ্গে যেতে পারে। তাই চুল ও ত্বক ঠিক রাখতে ঘুমানোর আগে হালকা করে রাবার ব্যান্ড লাগাতে পারন।

৮ ঘণ্টা ঘুমান

সুস্থ ত্বকের জন্য প্রতিদিন ৮ ঘণ্টা ঘুমান। পরিমিত ঘুম আপনাকে শারীরিক ও মানসিকভাবে বেশ চাঙ্গা রাখবে। যার প্রভাব পড়বে আপনার ত্বক ও চুলে। আর প্রতিদিন একই সময়ে ঘুমানো ও ঘুম থেকে উঠার অভ্যাস গড়ে তুলুন।

বরফ ব্যবহার করুন

চোখের নিচের কালো দাগ দূর করতে বরফ বেশ ভালো একটি উপাদান। নির্জীব চোখকে সজীব করে তুলতে প্রতিদিন চোখে আইস প্যাক ব্যবহার করতে পারেন।

 

 

তাহমিনা তাসির

ই-মেইল: contact@atpoure.com

Leave a Reply