এই গরমে যা খাবেন, যা ভুলেও খাবেন না

চলছে তীব্র দাবদাহ। ছেলে বুড়ো সবারই হাসফাঁস অবস্থা। তবে, চাইলে কিছু খাদ্যাভ্যাসই পার আপনাকে এই গরমে সুস্থ রাখতে, সতেজ রাখতে। জেনে নিন-

এই গরমে যা খাবেন, যা ভুলেও খাবেন না

(আরো পড়ুন: এসি ছাড়াই গরম তাড়ানোর ১৪ টিপস)

যা খাবেন

 

১. গরমে শরীরের প্রথম প্রয়োজন পর্যাপ্ত পানি। ঘামের সাথে অনেক পানি আর লবন বের হয়ে যায় শরীর থেকে। পানিশূন্যতা রোধ আর শরীর সতেজ রাখতে প্রতিদিন অন্তত তিন থেকে সাড়ে তিন লিটার পানি পান করুন।

২. পানীয় হিসেবে টক দইয়ের শরবত, বিভিন্ন ফল যেমন লেবু, বেল, তরমুজ, বাঙ্গি, ডালিম, কমলা বা আমের জুস খেতে পারেন।

৩. গরমে ডাবের পানি যে কতভাবে আপনাকে সুস্থ আর সতেজ রাখবে তা বলার অপেক্ষা রাখে না।

৪. শুধু জুস নয় গরমের সময় দেশি ফল খাওয়াও শরীরের জন্য বেশ উপকারী। আম, তরমুজ, আনারস, পেপে শুধু যে খেতেই সুস্বাদু তা নয়, এতে থাকা অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, ভিটামিন ও মিনারেল শরীরের পানি ও পিএইচ মাত্রা ব্যালেন্স করে, ঠিক রাখে সোডিয়াম-পটাশিয়ামের মাত্রাও।

৫. যাদের বেশি ঘাম হয় তারা পানির পাশাপাশি গ্লুকোজ মিশ্রিত পানি বা স্যালাইন পান করতে পারেন।

৬. গরমে কোষ্ঠকাঠিন্য বা পাকস্থলির সমস্যা এড়াতে ইসবগুলের ভুষির শরবত বেশ কাজের।

৭. ভাতের সাথে অল্প ঝাল ও তেল মসলার তরকারি রাখুন।

৮. প্রতিবারের খাবারে সবজি রাখুন। করলা বা উচ্ছের মতো তেতো সবজি অবশ্যই খান। পাকস্থলির কর্মক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করে।

৯. পানি সমৃদ্ধ সবজি যেমন লাউ, শসা, পেপে খাদ্যতালিকায় রাখুন। এগুলো শরীর থেকে বিষাক্ত পদার্থ বের করে দিতে সাহায্য করে।

১০. সবজির পাশাপাশি বেশি বেশি সালাদ খেতে চেষ্টা করুন।

১১. ফাইবার বা আঁশসমৃদ্ধ খাবার যেমন লাল চাল, লাল আটা খাদ্য তালিকায় রাখুন।

১২. পেট ঠাণ্ডা রাখতে সকাল বা দপুরে দই চিড়া বা কলা চিড়া খেতে পারেন।

১৩. গরমে সহজপাচ্য খাবার হিসেবে ডিম খেতে পারেন। তবে ডিম না ভেজে সেদ্ধ বা আধাসেদ্ধ ডিম খাওয়াই ভালো।

১৪. গরমে হাত পা জ্বলার সমস্যা হলে ধনেপাতা ও পুদিনা পাতার চাটনি খেতে পারেন।

১৫. হজমে সমস্যা বা গোলমাল হলে প্রতিদিনের খাবারের তালিকায় দই বা টক দই রাখতে পারেন।

১৬. সহজপাচ্য হওয়ায় মুরগীর মাংসের ঝোল বা ছোট মাছের তরকারি খেতে পারেন।

 

যা খাবেন না

 

১. প্রচণ্ড রোদ বা পরিশ্রমের পর পাকস্থলির কর্মক্ষমতা বেশ কমে যায়। তাই রোদ থেকে এসে বা ঘামের পর ঠাণ্ডা পানি পান করবেন না।

২. গরমে পানীয় বা জুস বেশ কাজের। তবে, এতে চিনি, ক্রিম বা দুধ না মেশানোই ভালো।

৩. গরমে খুব বেশ চা বা কফি পান করা একদমই ঠিক নয়।

৪. অতিরক্ত তেল মসলার খাবার, ভাজাভুজি অবশ্যই এড়িয়ে চলুন।

৫. অতিরক্ত আমিষ জাতীয় খাবার যেমন, যে কোনো মাংস, সামুদ্রিক মাছ ইত্যাদি এড়িয়ে চলুন।

৬. যে কোনো সসজাতীয় খবার এমনকি শুধু সসও খাদ্যতালিকা থেকে বাদ দিন।

৭. চর্বিযুক্ত খাবার অবশ্যই বর্জন করুন।

৮. চকলেট, চিপস বা কোল্ড ড্রিংকস, এই গরমে যতটা সম্ভব এ ধরনের খাবার এড়িয়ে চলার চেষ্টা করুন।

৯. রাস্তার ধারের রঙিন শরবত, আখের শরবত ইত্যাদি অবশ্যই এড়িয়ে চলুন।

১০. পেটের সমস্যা এড়াতে বাসি হয়ে যাওয়া খাবার একেবারেই খাবেন না।

 

 

নুসরাত শাহপার তুবা

ই-মেইল: contact@atpoure.com

2 COMMENTS

Leave a Reply