উৎসব কিংবা পার্টি, খাওয়া দাওয়া নিয়ন্ত্রণ করাটা বেশ কষ্টকরই হয় হয়তো। আর এমন দিনে নিয়ম ভেঙ্গে অতিরিক্ত খেয়ে নানা ধরনের বিশেষ করে পেটের সমস্যায় ভুগতে হয় অনেককেই। তাই বলে তো আর পার্টি বাদ দেয়া যাবে না। তো জেনে নিন

উৎসব বা পার্টিতে পেট ঠিক রাখার জরুরি টিপস

 

দাওয়াত বা নিমন্ত্রণে যাওয়ার কয়েকদিন আগে থেকেই খাওয়ার পরিমাণ একটু একটু করে কমিয়ে দিন৷সম্ভব হলে একটু হালকা খাবার অর্থাৎ মাংস, চর্বি বা মিষ্টিজাতীয় খাবার কম খাওয়ার চেষ্টা করুন।

খালি পেটে কখনোই দাওয়াতে যাবেন না! যাবার আগে অল্প সালাদ বা সামান্য টক দই খেয়ে যেতে পারেন। এতে পেট ঠাণ্ডা থাকবে আর পার্টিতে অতিরিক্ত খাওয়াও হবে না।

খাওয়ার বেশ কিছু সময় পরে পানি পান করা ভালো। এটা খাবারকে হজম করতে এবং কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করতে সাহায্য করে। কোকাকোলা, ফান্টা বা মিষ্টি জাতীয় পানি কম খান।

খাবার ধীরে ধীরে সময় নিয়ে ভালো করে চিবিয়ে খান। এতে খাবার ভালো হজম তো হবেই, তার সঙ্গে খাওয়ার পরিমাণও কম হবে। তাড়াহুড়ো করে বেশি খেতে গেলে পেট ও মস্তিষ্কের ওপর চাপ পড়ে।

অনুষ্ঠানগুলোতে লোভনীয় সব খাবার চেখে অবশ্যই দেখবেন। তবে তার পরিমাণ যেন কখনোই বেশি না হয়ে যায়। টেবিলে সাজানো যা যা আপনার পছন্দ, সেসব থেকে ছোট চামচ দিয়ে অল্প করে প্লেটে তুলে নিন, উপভোগ করে খান।

বুফেতে খাওয়া পেট এবং ওজনের জন্য বিপজ্জনক। তবে, নেহাতই উপায় না থাকলে ভাজা-ভুজি, চর্বিজাতীয় মাংস এবং মাংসের ঝোল ইত্যাদি একেবারেই এড়িয়ে চলুন। বেশি করে সবজি এবং সালাদ খান। দই বা ফলও খেতে পারেন। সম্ভব হলে দাঁড়িয়ে না খেয়ে বসে খান।

টেলিভিশন বা কোনো কিছু দেখতে দেখতে খাওয়া ঠিক নয়। এটা এড়িয়ে চলুন, কারণ, অন্যমনস্কতা খাওয়ার পরিমাণ বাড়িয়ে দেয়।

দাওয়াত বা পার্টিতে তুলনামূলকভাবে সবাই একটু বেশি খায়। যে কারণে অনেকেরই অম্বল বা অ্যাসিডিটির হয়। আগে থেকেই ম্যাগনেশিয়াম ট্যাবলেট বা এ ধরণের কিছু সাথে রাখতে পারেন।

বেশি খাওয়া হয়ে গেলে খানিকক্ষণ হেঁটে আসুন। ১৫ থেকে ২০ মিনিট বা আধাঘণ্টা হাঁটলে দেখবেন শরীরটাকে বেশ হালকা লাগছে।

 

 

আটপৌরে ডেস্ক

ই-মেইল: contact@atpoure.com

 

Leave a Reply