ইচ্ছে থাকলে বাড়িয়ে নিন ‘ইচ্ছে শক্তি’; ১০টি কার্যকরী টিপস

ইচ্ছে শক্তি বাড়ানোর ১০টি বৈজ্ঞানিক উপায়

মানুষের ইচ্ছে শক্তি তাকে সাফল্য এনে দেয়, এটা সত্য; কিন্তু, প্রশ্ন হলো ইচ্ছে শক্তি বাড়ানোর কি কোনো উপায় আছে? গবেষকদের মনে এ প্রশ্ন কাজ করছিলো অনেকদিন ধরেই। দীর্ঘদিনের গাবেষণা প্রমাণ করলো ইচ্ছে শক্তি বাড়াতে আসলেই বৈজ্ঞানিক কিছু উপায় আছে। অনেকগুলো পরীক্ষার পর তারা আবিষ্কার করেছেন ইচ্ছে শক্তি দেহের মাংস পেশীর মতোই অনেক সময় দুর্বল হয়ে পড়ে। অতিরিক্ত ব্যবহারের ফলে তা ক্লান্তও হয়ে পড়ে। তবে, গবেষকরা দাবী করছেন সঠিক চর্চার মাধ্যমে শরীরের অন্য পেশীগুলোর মতো ইচ্ছে শক্তিকেও আরো শক্তিশালী  করা যায়। জেনে নিন-

ইচ্ছে শক্তি বাড়ানোর ১০টি বৈজ্ঞানিক উপায়

১০ মিনিটের মেডিটেশন

ইচ্ছে শক্তি বাড়াতে যতো ব্যায়াম করতে হবে, তার মধ্যে সবচেয়ে দ্রুত ফল পাবেন মেডিটেশন করে। কারণ মেডিটেশন বা ধ্যান করে আপনি আপনার মস্তিষ্ককে বিক্ষিপ্ত হওয়ার হাত থেকে রক্ষা পাওয়ার প্রশিক্ষণ দিতে পারবেন। গবেষণায় দেখা গেছে ২/৩ দিন ১০ মিনিট করে মেডিটেশন করলে আপনার মস্তিষ্ক ভালোভাবে ফোকাস করতে পারবে, আপনার মানসিক চাপও কমবে।

দৈহিক গঠন ঠিক রাখা

গবেষকরা কয়েকজনের উপর গবেষণা চালিয়ে একটা বিষয় জানতে পেরেছেন- যারা অলসভাবে শুয়ে বসে কাটায়, তাদের চেয়ে যারা সোজা হয়ে বসে কাজ করে সেসব মানুষের মনোযোগ বেড়ে যায় কয়েকগুণ। সহজ এই ব্যায়ামটি আপনার ইচ্ছে শক্তি বাড়াতে দারুণ কাজ করবে।

ফুড ডায়রি রাখা

আপনি প্রতিদিন কি খাচ্ছেন, কোন কোন খাবার, কতোটুকু খাচ্ছেন তা লিখে রাখলে খাওয়ার পরিমাণ সম্পর্কে যেমন ধারণা থাকবে, তেমনি এতে আপনার ইচ্ছে শক্তিও বাড়বে। নিজেকে কম ও পরিমিত খাওয়ার ব্যাপারে পরিচালিত করতে পারবেন আপনি। এতে ওজনও নিয়ন্ত্রণে থাকবে আপনার।

অন্য হাত ব্যবহার করুন

আমরা সাধারণত ডান হাত দিয়েই গুরুত্বপূর্ণ সব কাজ করি। কারো জন্য বাম হাতই বেশি কার্যকর। তবে যদি ইচ্ছে শক্তি বাড়াতে চান, তাহলে দিনে অন্তত ১ ঘণ্টা সময় কম ব্যবহার হওয়া অন্য হাত দিয়ে কাজ করুন। কারণ মস্তিষ্ক কম ব্যবহার হওয়া হাতকে কাজে লাগাতে গেলে ইচ্ছে শক্তির প্রয়োজন পড়বে আপনার।

বাচনভঙ্গির পরিবর্তন করুন

গবেষণায় আরো জানা গেছে, মানুষের বাচনভঙ্গির পরিবর্তন তার ইচ্ছেশক্তি বাড়িয়ে দেয়। যেমন, কারো সাথে দেখা হলে ‘হেই’ বলার চেয়ে বলুন ‘হ্যালো’। সালাম দিতে পারেন সুন্দর করে। অথবা গুড মর্নিং, গুড আফটারনুন এসব সম্ভাষণ করুন সুন্দরভাবে। দেখা গেছে, মাত্র ২ সপ্তাহ এ চর্চা চালিয়ে গেলে ইচ্ছে শক্তি বাড়ে অনেক।

নিজের তৈরি সময়সীমায় কাজ করুন

স্কুল, কলেজ বা বিশ্ব্ববিদ্যালয়ের কথা মনে আছে নিশ্চয়ই? পরীক্ষা শেষ করতে হতো আপনাকে নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে। একইভাবে অফিসে বা ব্যক্তিগত কাজের ক্ষেত্রে যদি আপনি একটা নির্দিষ্ট সময় সীমা মেনে চলেন, তাহলে আপনার ইচ্ছে শক্তি দারুণভাবে বেড়ে উঠবে। সিগারেট, মদ সহ অপ্রয়োজনীয় খাবার ছেড়ে দিতে নির্দিষ্ট একটা সময়সীমা মেনে চলুন।

খরচের হিসেব রাখুন

যেমন করে আমরা অনেকে প্রতিদিন কি খাচ্ছি তার হিসেব রাখি না, তেমনি কতো টাকা ব্যয় করছি তারও হিসেব রাখি না। গবেষকরা বলছেন, প্রতিদিন আপনি কোন কাজে কতো টাকা খরচ করছেন, তার হিসেব রাখলে আপনার ইচ্ছে শক্তি বাড়বে।

হ্যান্ডগ্রিপ চাপুন

আগে মাঝে মাঝেই চোখে পড়তো রাস্তায় ছেলেরা ব্যায়ামের অংশ হিসেবে হ্যান্ডগ্রিপ ( ব্যায়ামের ছোট মেশিন) নিয়ে ঘুরছে। কথা বলার ফাঁকে ফাঁকে হ্যান্ডগ্রিপ চাপতেও দেখা যেতো অনেককে। এভাবে  কিন্তু ব্যায়ামের মাধ্যমে আপনিও বাড়িয়ে তুলতে পারেন ইচ্ছে শক্তি।

প্রলোভনকে ‘না’ বলুন

প্রতিদিন অনেক কিছু্‌ই করতে ইচ্ছে করে আপনার। হয়তো একটা কিছু খুব খেতে ইচ্ছে করছে। একটা পছন্দের ছবি দেখতে ইচ্ছে করছে। কোথাও খুব যেতে ইচ্ছে করছে। এসব প্রলোভনকে, ব্যাকুলতাকে জয় করতে হবে। নিজেকে ‘না’ বলতে পারবেন যতো, আপনার ইচ্ছে শক্তি ততো শক্ত হবে।

সিদ্ধান্তের ব্যাপারে সচেতন হোন

প্রতিদিন আমরা কাজে এতো ব্যস্ত থাকি যে হুট হাট করে অনেক সিদ্ধান্ত নিতে হয়। সেসব সিদ্ধান্ত আপনি কেন নিচ্ছেন সে ব্যাপারে সচেতন হোন। যেমন, সকালে নাস্তার সাথে ডিম খাবেন না সব্জি খাবেন, চায়ে কেন দু’চামচ চিনি নিতে হয়, এসব ব্যাপারে যদি সচেতন হন, তাহলে নিজের প্রতি নিয়ন্ত্রণ বাড়বে, ইচ্ছে শক্তিও বাড়বে আপনার।

মনে রাখতে হবে ইচ্ছে শক্তিও শরীরের অন্য সব পেশীর মতো  আচরণ করে। তাই উপরের ১০ টি ব্যায়াম বা কৌশল যদি আপনি একদিনেই চেষ্টা করেন তা হিতে বিপরীত হতে পারে। প্রথমে একটি বা দুটি কৌশল অবলম্বন করুন। ধীরে ধীরে যোগ করুন অন্য সব কৌশল। দেখবেন এক পর্যায়ে আপনার ইচ্ছে শক্তি অনেক বেড়ে গিয়ে মানসিকভাবে শক্তিশালী হয়ে উঠেছেন আপনি।

 

আহমেদ শরীফ

ই-মেইল: contact@atpoure.com

Leave a Reply