সেই শৈশব থেকেই সময়ানুবর্র্তীতা নিয়ে বাবা-মা, শিক্ষকদের কাছে কথা শোনেনি এমন লোক খুঁজে পাওয়া যাবে না। আমরা সবাই জানি, পড়ালেখা বা পেশাজীবনে উন্নতি করতে চাইলে সময় মেনে চলাটাই সমাধান। তারপরও সময়ের পেছনে দৌঁড়ানো বা অফিস, মিটিং বা ক্লাসে যেতে দেরি হয়ে যাওয়ার সমস্যা এখনো হয়তো অনেকেরই আছে।

আজও লেট? জেনে নিন এর কারণগুলো

অ্যালার্মের সমস্যা?

অ্যালার্ম বাজেনি, ভুল সময়ে অ্যালার্ম ঠিক করা ছিলো বা শুনেও ঘুম ভাঙ্গেনি- কারণ যাই হোক আপনার উচিত আরেকটু চিন্তা করে আপনার ঘুমের সময়টা ঠিক করা। প্রতিরাতে আপনার ঘুমের জন্য ৭-৮ ঘণ্টা সময় রেখে ২-৩টা অ্যালার্ম সেট করুন। আর আরো ভালো ফল চাইলে অ্যালার্ম ঘড়িটা ঘরের এক কোনায় নয়তো বিছানা থেকে দূরে রাখুন।

তৈরি হওয়া যুদ্ধের মতো?

কোথায় ব্যাগ, চাবি বা কাপড়টা ঠিকমতো ইস্ত্রি করা আছে কি না ইত্যাদি নিয়ে তৈরি হওয়ার সময় বেশ ঝামেলায় পড়ে যান? এটা কিন্তু এড়ানো সম্ভব। শুধুমাত্র আগের রাতেই ঠিক করে রাখুন সকালে আপনার কি কি লাগবে। আর সাজপোশাকের ক্ষেত্রে খুঁতখুঁতে না হয়ে, সময় বাঁচানোর চেষ্টা করুন।

বন্ধুর কল বা ফেসবুক নোটিফিকেশন

ছোটখাটো বাধা যাতে আপনাকে রীতিমতো দেরি করিয়ে না দিতে পারে সেদিকে খুব মনযোগী হোন। যদি আপনার ফোন আসে তবে এক মিনিট সময় নিয়ে কথা বলুন, জরুরি কিছু না হলে তাকে বলুন, কিছুক্ষণ পর ফোন করবেন। জরুরি ই-মেইল আসলে দ্রুত তা চেক করে ফোনটা রেখে দিন।

ইন্টারনেট মনযোগ চুরি করছে?

পাঁচ মিনিট পরপরই হয়তো আপনার ফোন, ল্যাপটপ বা কম্পিউটার চেক করার ইচ্ছা জাগে। হয়তো কোনো ঘটনা বা এমন কিছু যা আপনাকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে স্ট্যাটাস দিতে উৎসাহিত করে। চেষ্টা করুন আপনার গন্তব্যে পৌঁছানোর পর স্ট্যাটাস আপডেট দিতে।

 

 

নুসরাত শাহপার তুবা

ই-মেইল: contact@tipsortricks.com

Leave a Reply